সাতক্ষীরার পল্লীতে গৃহবধুকে হত্যার হুমকি; স্ত্রীর স্বীকৃতি দিতে চায় না প্রতারক ইমরান

শেখ হাসান গফুর : অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলাধীন ইসলামকাটি গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের কন্যা রোজিনা বেগমের সাথে ২০১৯ সালে ভালবেসে বিয়ে হয় খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার শাহপুর গ্রামের শেখ শহিদুল ইসলামের পুত্র শেখ ইমরানের সঙ্গে। রোজিনা বেগম জানায় ইমরানের সাথে আমার ২০১৯ সালের প্রথম দিকে পরিচয় হয়। আমাদের দুইজনের মধ্যে ভালবাসার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে ২০১৯ সালের মাঝামাঝি সময় সে আমাকে খুলনা কোর্টের মাধ্যমে রেজিস্ট্রি বিয়ে করে। বিয়ে করে নিজের বাড়িতে না নিয়ে মংলায় শেখ নজরুল ইসলামের পুত্র শেখ রুবেলের বাড়িতে নিয়ে ওঠে। সেখানে ১৫/২০ দিন আত্মীয় পরিচয়ে থাকার পর আমি তাকে তার নিজের বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার কথা বললে আমার বাড়িতে একটু সমস্যা আছে এই মুহুর্তে নেওয়া যাবে না বলে টালবাহানা শুরু করে এবং ঐ বছর আগস্ট মাসে চুকনগর বাজারে আমাকে বাসা ভাড়া করে রাখে। আস্তে আস্তে জানতে পারি শেখ ইমরানের আগেও স্ত্রী সন্তান আছে। তার কিছুদিন পর আমি জানতে পারি শেখ ইমরানের প্রথম স্ত্রী আবারও সন্তান সম্ভাবা। তখন আমি তাকে জিজ্ঞাসা করলে সে বিভিন্ন রকম টালবাহানা করে এবং আমার উপর অত্যাচার নির্যাতন শুরু করে। এক পর্যায়ে আমি রাগান্বিত হয়ে সুভাষিনি এলাকায় আমার বোনের বাড়ি গিয়ে থাকি। তখন শেখ ইমরান সেখান থেকে আমাকে বিভিন্ন মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে পুনরায় চুকনগরে বাসা ভাড়া করে রাখে। এরই মধ্যে আমার পিতা অসুস্থ হয়ে পড়লে আমি খুলনা গাজী মেডিকেলে আমার পিতাকে নিয়ে চিকিৎসার জন্য সেখানে কয়েকদিন থাকি। সেই সুযোগে শেখ ইমরান আমার ব্যাগ থেকে বিয়ের সকল কাগজপত্র চুরি করে নষ্ট করে ফেলে এবং আমাকে অস্বীকার করা শুরু করে। তারপর আমি নিজ পিত্রালয় ইসলামকাটি চলে আসলে সেও আমার বাড়িতে আসা যাওয়া শুরু করে এবং এক পর্যায়ে আমি বিয়ের সমস্ত কাগজপত্র ফেরত চাইলে বলে সেগুলো নষ্ট হয়ে গেছে। আমি তোমাকে পুনরায় আবার বিয়ে করব। তার কথা অনুযায়ী গত ৩১/০১/২০২০ তারিখে ১,৫০,০০০/- (এক লক্ষ প াশ হাজার) টাকা দেনমোহরে ইসলামকাটি ইউনিয়ন রেজিস্ট্রারের মাধ্যমে বিয়ে সম্পন্ন হয়। তারপর আবার শেখ ইমরান তার বাড়িতে না নিয়ে চুকনগর বাজারের সালাম শেখের বাড়িতে বাসা ভাড়া করে রাখে। এরই মধ্যে রোজিনা বেগম প্রায় ৩ মাস গর্ভবতী। শেখ ইমরান জানতে পেরে তার গর্ভের সন্তান নষ্ট করার জন্য বিভিন্ন প্রকার চাপ সৃষ্টি শুরু করে এবং রোজিনা বেগমের খোঁজ খবর নেয়া বন্ধ করে দেয়। এরই মধ্যে গত ২৭ জুন ২০২০ তারিখ দুপুর ২টা দিকে ইমরানের প্রথম স্ত্রী শেফাউল হোসনা (তনু) জনৈক নোমান ও আনোয়ার গাজী রোজিনা বেগমের চুকনগরের বাসায় এসে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ, মারধ করতে উদ্যত হয় ও জীবনাশের হুমকি প্রদর্শন করে। এ বিষয়ে রোজিনা বেগম শেখ ইমরান কে জানালে সেও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও বিয়ে তাদের সামনে অস্বীকার করে। এ ব্যাপারে রোজিনা বেগম সংশ্লিষ্ট থানায় সাধারণ ডায়রী করেছে বলে জানা গেছে এবং ইমরানের প্রতারণা হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *