বেস্ট দম্পত্তিসহ কলারোয়া বেস্ট টিমের ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক : এবার কলারোয়ায় অবৈধ ফেসবুক বেইজড সংগঠন বেস্ট টিমের জেলা এ্যাডমিনসহ ১১ সদস্যদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ও চাঁদাবাজির অপরাধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার থানা সূত্রে জানা যায়, কলারোয়ার সোনাবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলামের দায়েরকৃত মামলায় সাতক্ষীরা বেস্ট টিমের এ্যাডমিন মোস্তাফিজুর রহমান ও তার স্ত্রী জেলা পরিষদের সদস্য এড. শাহানাজ পারভীন মিলি এবং কলারোয়া উপজেলা বেস্ট টিমের আহবায়ক ইমরান হোসেনসহ ১১ জনকে আসামী করে (যার নং- ২/৩-০৯-২০ইং, ধারা ৪৪৭/৩৮৫/৩৮৬/৩৪ পিসি তৎসহ ২০১৮ সালের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ২৫(১), (ক) (২)/২৯(১)/৩১ মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার অপর আসামীরা হলেন, কলারোয়া বেস্টটিমের সদস্য মেহেজাবিন জয়িতা, ওয়াসিম, কানা বাদল, রুবেল মেহেদী, রাজু রায়হান, মেহেদী হাসান, আসিফ খাঁন ও অনিক। থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মুনীর-উল-গীয়াস মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মামলার আসামী সাতক্ষীরা বেস্টটিমের এ্যাডমিন মোস্তাফিজুর রহমান ও তার স্ত্রী এড. শাহানাজ পারভীন মিলি পূর্বেই অন্য মামলায় গ্রেফতার থাকায় তাদের বিরুদ্ধে শোন এরেস্ট দেখিয়ে অপর ৯ জন আসামীকে গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার(১ সেপ্টেম্বর) রাত দেরটার দিকে সাতক্ষীরা জেলা গেয়েন্দা পুলিশ ও সদর থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে সাতক্ষীরা শহরের নিউমার্কেটস্থ সাতক্ষীরা ফার্মেসী সংলগ্ন বাসা হতে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। সাতক্ষীরা থানার এসআই হাফিজুর রহমান গ্রেফতারের বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার পরানদহা এলাকার ট্রলি চালক আলম হোসেনের দায়ের করা মামলায় তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত শুক্রবার(২৮ আগস্ট) বিকালে বেস্ট টিম সাতক্ষীরার এডমিন মোস্তাফিজুর রহমান, আহবায়ক ও জেলা পরিষদ সদস্য শাহনেওয়াজ পারভীন মিলি ও কুলিয়ার সাবেক ইউপি সদস্য মোশাররফ হোসেনকে সাথে নিয়ে সাতক্ষীরা সদরের পরানদহা এলাকার আব্দুল মালেক সরদারের ছেলে ট্রলি চালক আলম হোসেনের ঘরের তালা ভেঙে বাড়ি হতে মুল্যবান কাগজপত্র, দলিল ও টাকা লুটপাট করে আলমের সদ্য তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী ও দেবহাটা উপজেলার কুলিয়া এলাকার নুর আলীর মেয়ে মাছুরা খাতুন।

দীর্ঘদিন ধরে ফেসবুক বেইজড বেস্ট টিম সাতক্ষীরা নামের ভুঁইফোড় ও অবৈধ সংগঠন বানিয়ে পারিবারিক কলহ, নারী নির্যাতন, বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ, জমিজমা সংক্রান্ত গোলযোগ মিমাংসার নামে মানুষকে জিম্মি করে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নেয়ার পাশাপাশি সাতক্ষীরা জেলাব্যাপী দাপিয়ে বেড়িয়ে সাধারণ মানুষকে অতিষ্ঠ করে তুলেছিলো মাদকাসক্ত মোস্তাফিজুর রহমান ও তার স্ত্রী শাহনেওয়াজ পারভীন মিলি। এছাড়া সম্পূর্ন অবৈধভাবে ফেসবুক লাইভে শালিস বিচারের নামে প্রতিনিয়ত মানুষের সম্মানহানি ও আইন হাতে তুলে নেয়ার বহু অভিযোগও রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। এই বেষ্ট টিম সাতক্ষীরার দুই কান্ডারি হিসেবে পরিচিত সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট শাহনেওয়াজ পারভিন মিলি ও তার বর্তমান স্বামী মাদকাসক্ত মোস্তাফিজুর রহমান। তারা দুইজন জেলার এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে বাল্যবিবাহ বন্ধের নামে অর্থ বাণিজ্য করে বেড়াচ্ছে এমন অভিযোগ রয়েছে দীর্ঘদিন। এই টিমে মোস্তাফিজুর রহমান তার মোটর সাইকেলের পিছনে বয়ে নিয়ে বেড়ান কয়েকজন সুন্দরী নারীকে। এই চক্র সর্বশেষ অপকর্ম করতে যেয়ে গত ২৮ আগস্ট ২০২০ শুক্রবার জনরোষে পড়ে পালিয়ে ফিরেছে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার পরানদহা গ্রামের দরিদ্র আলম হোসেনের বাড়ি থেকে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *